শিক্ষকতা ছেড়ে নিজের অসাধারন আইডিয়াকে কাজে লাগিয়ে বর্তমানে বার্ষিক আয় ২ হাজার কোটি টাকা

আজ আমাদের আলোচ্য বিষয় এমন একজন মানুষকে নিয়ে যিনি, একটি অত্যন্ত লাভজনক চাকরি ছেড়ে শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে চেয়েছিলেন সমাজে, সমাজের ভাবধারা পরিবর্তন করতে চেয়েছিলেন, যার ফলে তিনি বেছে নিয়েছিলেন একটি নতুন ইনিংস। ইনি সেই ব্যক্তি, যিনি তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষার প্রসার ঘটিয়ে আজ দেশের অন্যতম প্রভাবশালী ব্যক্তিতে পরিণত হয়েছেন।

বর্তমানে ভারতের প্রায় ৯৪% শিক্ষার্থী স্মার্টফোন নিয়ে পড়াশোনা করেন। আর এই অনলাইন শিক্ষার অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠান হল BYJU! জানেন কি, এই কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতার নাম কি, তাঁর নাম বাইজু রাবীন্দ্রান (Byju Raveendran)! যিনি আজ সকল ছাত্র ছাত্রীদের একজন শিক্ষাগুরু হয়ে উঠেছেন৷ তবে তাঁর এই সফলতা আজকের নয়, রবীন্দ্রন তাঁর উপযুক্ত শিক্ষা শেষ করে কয়েক বছর শিপিং ফার্মে ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করতে শুরু করেন! সেই সময়ে রবীন্দ্রন তাঁর কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের পড়াতে শুরু করেন, CAT এক্সাম ক্র্যাক করার জন্যে!

তাঁর সেই বন্ধুরা সফলভাবে ক্যাট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপরেই তাঁর বন্ধু-বান্ধবরা তাঁকে কোচিং ক্লাস শুরু করার অনুরোধ করেন। তখনই তিনি বাইজুস ক্লাস শুরু করেন, আর এতটাই তা জনপ্রিয় হয়ে ওঠে যে রবীন্দ্রন চাকরি ছেড়ে দিয়ে একেকটা ক্লাস নেওয়ার জন্যে শহরে শহরে ভ্রমণ শুরু করেন। যদিও তাঁর পক্ষে সর্বত্র গিয়ে ছাত্রদের পড়ানো কঠিন ছিল, তখনই তিনি ঠিক করেন এক জায়গায় বসে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রীর সঙ্গে ইন্টারনেটের মাধ্যমে শিক্ষা দেবেন তিনি।

এই ধারণা অব্যাহত রেখে, তিনি ২০১৫ সালে BYJU লার্নিং অ্যাপ্লিকেশন চালু করেন। যেখানে CAT পরীক্ষা, সিভিল সার্ভিসেস পরীক্ষা, জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা (JEE), প্রবেশিকা পরীক্ষা (NEET), গ্র্যাজুয়েট রেকর্ড টেস্ট (GRE) এবং স্নাতক, GMAT এর মতো একাধিক মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার উপাদান সরবরাহ করা হয়। এখন এই এপটির মাধ্যমে কোটি কোটি শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন।

এমনকি তাঁর এই প্রতিষ্ঠানে ২০১৬ সালে চ্যান জুকারবার্গ ফাউন্ডেশন, ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ এবং তাঁর স্ত্রী প্রিসিলা চ্যান ৫০ মিলিয়ন (প্রায় ৩৩২ কোটি টাকা) ডলার বিনিয়োগ করেছেন। এছাড়া জানুয়ারী ২০২০-এ, নিউইয়র্ক-ভিত্তিক টাইগার গ্লোবাল ম্যানেজমেন্ট বাইজুতে $২০০ মিলিয়ন বিনিয়োগ করেছে। ২০২১ সালের বাইজু কোচিং ইনস্টিটিউট চেইন আকাশ ইনস্টিটিউটকে প্রায় ৭,৫০০ কোটি টাকায় কিনে নিয়েছিলেন। সুতরাং বুঝতেই পারছেন সফলতা যখন তখন আসতে পারে, তার জন্যে দরকার শুধুই পরিশ্রম আর ধৈর্য্য!

Leave a Comment