ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে মাসে ৬ লাখ টাকার দই বিক্রি করেন আসাদ!

বেসরকারি ব্যাংকার এস এম আসাদ। বেতন পেতেন ২৬ হাজার টাকা। চাকরিতে মন বসছিল না তার। স্বপ্ন ছিল উদ্যোক্তা হওয়ার। স্বপ্ন পূরণে আসাদ ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে দেন। শুরু করেন গরুর খামার। ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে খামার পেশাকে ভালোভাবে নেয়নি কেউ। কারও দিকে না তাকিয়ে ২০১৯ সালে নগরের দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ডের ফতেয়াবাদে নিজ বাড়ির আঙিনায় ৪টি গরু দিয়ে শুরু করেন খামার।

দেশে নিয়োগ দেবে কমিউনিটি ক্লিনিক যোগ্যতা এইচএসসি পাস
তিন বছরের মাথায় গরু হয় ১১টি। দই বিক্রির টাকায় পরিশোধ করেছেন ঋণও। বর্তমানে মাসে ছয় লাখ টাকার দই বিক্রি হয় তাঁর খামারের। বছরে আসে ৭২ লাখ টাকা। আসাদ বলেন, আগে যারা বাঁকা চোখে দেখতেন, তারাই এখন বাহবা দেন। কোনো কাজই ছোট নয়। তাঁর দইকে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়া। পাশাপাশি আয় থেকে সমাজের জন্য আরও কিছু করা তাঁর স্বপ্ন। এস এম আসাদের বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আলী আরশাদ চৌধুরী বলেন, আসাদ প্রমাণ করেছে, পরিশ্রম ও ইচ্ছাশক্তি থাকলে যেকোনো কাজে সফল হওয়া যায়। কোনো কাজকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। শুধু চাকরির পেছনে না ছুটে নিজেরা উদ্যোগী হয়ে পরিবার ও সমাজের জন্য কিছু করা যায়।

1 thought on “ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে মাসে ৬ লাখ টাকার দই বিক্রি করেন আসাদ!”

Leave a Comment